1. akibmahmud2010@gmail.com : akibmahmud :
  2. galib.nyc@gmail.com : galib.nyc :
  3. t.m.a.hasib@gmail.com : t.m.a. hasib : t.m.a. hasib
  4. tahmim0007@gmail.com : newsdesk :
জানেন করোনাকালে কতটা প্রয়োজন ভিটামিন ডি? - SheraNews
বৃহস্পতিবার, ০৬ অগাস্ট ২০২০, ০৯:৪৪ অপরাহ্ন

জানেন করোনাকালে কতটা প্রয়োজন ভিটামিন ডি?

সেরা নিউজ
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ৩১ জুলাই, ২০২০

স্বাস্থ্য ডেস্ক:
করোনাভাইরাস মহামারির কারণে সবাই স্বাস্থ্য সম্পর্কে অতিরিক্ত সতর্ক হয়ে উঠেছেন। করোনা মোকাবেলায় বিশেষজ্ঞরা ভিটামিন ও খনিজ গ্রহণের ওপর অতিরিক্ত গুরুত্ব দিচ্ছেন। তাদের মতে, এগুলো শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।

গবেষণায় দেখা গেছে, ভিটামিন ডি করোনাভাইরাস মোকাবিলায় বেশ কার্যকর। এ কারণে অনেকেই গুরুত্ব বুঝে এই ভিটামিন গ্রহণ শুরু করেছেন। তবে বেশিরভাগ মানুষেরই জানা নেই কোন বয়সে দৈনিক কি পরিমাণে ভিটামিন ডি গ্রহণ করা দরকার। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ভিটামিন ডি বয়স অনুযায়ী গ্রহণ করতে হবে। যেমন- শূন্য থেকে ১ বছর বয়সীদের প্রতিদিন  ৪০০ আইইউ,  ১ থেকে ১৩ বছর বয়সীদের ৬০০ আইইড, ১৪ থেকে ১৮ বছর বয়সীদের ৬০০ আইইউ, পূর্ণ বয়স্ক অর্থাৎ ১৯ থেকে ৭০ বছর বয়সীদের ৬০০ আইইউ, ৭১ বছরের বেশি বয়সীদের ৮০০ আইইউ, গর্ভবতী ও বুকের দুধ খাওয়ানো মায়েদের ৬০০ আইইউ পরিমাণে ভিটামিন ডি গ্রহণ করা দরকার।

ভিটামিন ডিয়ের অন্যতম প্রধান উৎস হচ্ছে সূর্যের আলো। এটি থেকে সহজেই শরীরে ভিটামিন ডি পাওয়া যায়। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সূর্যের আলো থেকে ভিটামিন ডি গ্রহণের সবচেয়ে ভালো সময় হচ্ছে সকাল ১০ টা থেকে দুপুর ৩ টা পর্যন্ত। এ সময় সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মি সবচেয়ে তীব্র থাকে। তাদের মতে,এ সময়ের মধ্যে একটানা ১৫ মিনিট রোদে বসে থাকলেই শরীরের প্রয়োজনীয় ভিটামিন ডিয়ের ঘাটতি পূরণ হয়। দীর্ঘসময় রোদে বসে থাকা মোটেও স্বাস্থ্যকর নয়। এতে ত্বকের ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ে।

এছাড়া বিভিন্ন খাবার থেকেও দিনের চাহিদার ভিটামিনের ডিয়ের ঘাটতি পূরণ হয়। এর মধ্যে বিভিন্ন সামুদ্রিক মাছ, পনির, মাশরুম, দুধ, ডিম, গরুর কলিজা, মুরগির বুকের মাংস উল্লেখযোগ্য। চাইলে চিকিৎসকের পরামর্শে ঘাটতি পূরণে ভিটামিন ডিয়ের সাপ্লিমেন্টও গ্রহণ করতে পারেন। সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া

 

সেরা নিউজ/আকিব

Please Share This Post in Your Social Media

এই ক্যাটাগরীর আরও সংবাদ
© All rights reserved by Shera News
Developed BY: Transfotech